Skip navigation (access key S)

Access Keys:

আমার সাইট ভিজিট গোপন রাখুন

এখুনি কারুর সাথে কথা বলতে চান?

  • বিনীমূল্য, গোপনীয় আইন সংক্রান্ত পরামর্শ প্রাপ্ত করুন

    08001 225 6653এ কল করুন
  • সোমবার থেকে শুক্রবার, সকাল 9 টা থেকে বিকেল 8:00
  • শনিবার, সকাল 9টা থেকে দুফুর 12.30 পর্যন্ত
  • প্রতি মিনিট/4পী’র দর থেকে কল করুন – কিংবা এমন ব্যবস্থা করুন যাতে আমরা আপনাকে ফেরত ফোন করতে পারি

আপনার এলাকাতে একটি আইন সংক্রান্ত পরামর্শদাতা কে খুঁজুন

23. আমার চাকুরিদাতা আমার চাকুরির চুক্তির শর্তভঙ্গ করছেন। আমি কী করতে পারি?

আপনার চাকুরিদাতা যদি আপনার চাকুরির চুক্তির শর্ত না মানেন তাহলে আপনার কী কী অধিকার আছে সে সম্বন্ধে জেনে নিন।

চাকুরির চুক্তিভঙ্গ তখনই হয় যখন হয় আপনি নয় আপনার চাকুরিদাতা আপনার চাকুরির চুক্তির কোনো একটি শর্ত না মানেন। আপনার চাকুরিদাতা চাকুরির চুক্তিভঙ্গের দায়ে পড়তে পারেন তখন, যদি তিনি আপনাকে আপনার বেতন না দেন অথবা আপনার সম্মতি না নিয়ে জোর করে আপনার কাজের পরিস্থিতির কোনো পরিবর্তন ঘটান।

আপনার চাকুরিদাতা যদি আপনার চাকুরির চুক্তির শর্তভঙ্গ করেন তাহলে আপনার উচিত আগে তাদের মৌখিকভাবে অথবা লিখিতভাবে সেকথা জানানো। এই কাজ বুঝে শুনে করবেন- এমন হতেই পারে যে আপনার চাকুরিদাতা একটি সহজ ভুল করেছেন এবং আনন্দের সাথে তা শুধরে দেবেন।

আপনার চাকুরিদাতা যদি কিছু না করেন, তাহলে তাদের চিঠি লিখে আনুষ্ঠানিকভাবে আপনার ক্ষোভ জানান এবং বলুন যে যদি তারা আপনার অভিযোগের সমাধান সন্তোষজনকভাবে না করেন তাহলে আপনি তাদের বিরুদ্ধে অন্য ব্যবস্থা নেবেন। আপনার চিঠির একটি কপি নিজের কাছে রাখবেন।

আপনি যদি আপনার চাকুরিদাতার সাথে সমস্যা মেটাতে না পারেন তাহলে আপনি চাকুরির চুক্তিভঙ্গ করার কারণে ক্ষতিপূরণ দাবি (বা ক্লেম) করতে পারেন:

  • কোনো এমপ্লয়মেন্ট ট্রাইবিউনালের কাছে। শুধুমাত্র আপনার চাকুরী শেষ হয়ে যাবার পরেই আপনি এটা করতে পারেন।
  • কাউন্টি কোর্টের কাছে। আপনার চাকুরিদাতার কাছে চাকুরী থাকাকালীন-ই আপনি এটা করতে পারেন।

আপনি যদি মনে করেন যে আপনার চাকুরিদাতা আপনার সাথে বৈষম্যমূলক ব্যবহার বা ডিসক্রিমিনেট করে আপনার চাকুরির চুক্তির শর্তভঙ্গ করেছেন তাহলে আপনি কোনো এমপ্লয়মেন্ট ট্রাইবিউনালের কাছে ডিসক্রিমিনেশান সংক্রান্ত কারণে ক্ষতিপূরণ দাবি (বা ক্লেম) করতে পারেন।

সাধারণত, কোনো এমপ্লয়মেন্ট ট্রাইবিউনালের কাছে যাবার আগে আপনার উচিত আপনার চাকুরিদাতার নিজস্ব ক্ষোভ নিরসন পদ্ধতি (Grievance Procedure বা গ্রীভান্স প্রসিজিওর)-র মধ্যে দিয়ে যাওয়া। আপনি যদি এটা না করেন, তাহলে আপনি কোনো ট্রাইবিউনালের কাছে মামলা জিতলেও, কম ক্ষতিপূরণ পেতে পারেন।

এই সবকটি ক্ষেত্রেই, আপনার সবচেয়ে কাছের এমপ্লয়মেন্ট ট্রাইবিউনাল অফিসে যোগাযোগ করুন এবং তাদের কাছে একটি ক্লেম ফর্ম (Claim Form) চেয়ে নিন। আপনার সবচেয়ে কাছের এমপ্লয়মেন্ট ট্রাইবিউনাল অফিস কোথায় তা জানবার জন্য এমপ্লয়মেন্ট ট্রাইবিউনাল এনকোয়ারি লাইনে 0845 795 9775 নাম্বারে ফোন করতে পারেন।

যে তারিখ থেকে আপনার চাকুরী শেষ হয়েছে অথবা আপনার শেষ কাজ করার তারিখ থেকে তিন মাসের একদিন কমের মধ্যে আপনি এমপ্লয়মেন্ট ট্রাইবিউনালের কাছে এই ক্লেম বা দাবি করতে পারবেন। এর অর্থ হচ্ছে, ধরা যাক, আপনার শেষ কাজ করার তারিখ যদি 1 অগাস্ট 2009 হয়ে থাকে, তাহলে আপনাকে কোনো ট্রাইবিউনালের কাছে খুব বেশি হলে 31 অক্টোবারের মধ্যে দরখাস্ত করতে হবে।

চুক্তির শর্তভঙ্গ করা এতটাই গুরুতর ব্যাপার যে এই ক্ষেত্রে কোনো ব্যক্তির এই অধিকার থাকে যে তিনি ‘গঠনমূলক অন্যায়ভাবে বরখাস্ত করা’ (কনস্ট্রাকটিভ আনফেয়ার ডিসমিসাল বা constructive unfair dismissal)এই দাবি করে চাকুরী থেকে ইস্তফা দিতে পারেন। তবে আপনি ইস্তফা দেবার আগে, শীঘ্র কোনো বিশেষজ্ঞের কাছে আইনি পরামর্শ নিন। আপনার চাকুরিদাতার ব্যবহারের জন্যই যে এই ‘গঠনমূলক অন্যায়ভাবে বরখাস্ত করা’-র অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে সেটি প্রমাণ করা খুবই কঠিন কাজ।

আপনার চাকুরিদাতা যদি চাকুরির চুক্তির শর্তভঙ্গ করেন সেই ব্যাপারে, অথবা আপনার চাকুরী সংক্রান্ত অন্য কোনো বিষয়ের মোকাবিলা করতে যদি আপনি সাহায্য চান, তাহলে আমাদের চাকুরী সংক্রান্ত পরামর্শদাতা বা এমপ্লয়মেন্ট অ্যাডভাইজার-দের থেকে এই ব্যাপারে বিশেষ পরামর্শ পাবার জন্য 08001 225 6653 নাম্বারে ফোন করুন৷ আপনি টেলিফোনে বিশেষ পরামর্শ শুধুমাত্র তখনই পাবেন যদি আপনি আইনি সাহায্য বা লিগাল এইড পাবার যোগ্য হন৷

উপরে ফেরত যান